গণমাধ্যমকর্মীদের নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান যুক্তরাজ্যের

গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপকারী দেশগুলোকে খেসারত দিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট। এসব প্রতিরোধে কূটনৈতিক পদক্ষেপের আভাস দিয়েছেন তিনি। লন্ডনের একটি সম্মেলনে জেরেমি গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন। চীনের উদাহরণ টেনে জানান, গণমাধ্যমে সরকারের সমালোচনা রোধ এবং মিথ্যা তথ্য বিস্তারের জন্য লাখো মানুষকে যুক্ত করা হয়েছে। গণমাধ্যমকর্মীদের নির্যাতনকারী এবং স্বাধীন সাংবাদিকতায় বাধা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে সম্মিলিত প্রতিরোধ গড়ার আহ্বানও জানান ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

দেশে দেশে মুক্ত গণমাধ্যম ও বাকস্বাধীনতা নিশ্চিতের কর্মসূচি পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ, ইথিওপিয়া ও সিয়েরা লিওনের জন্য এক কোটি ৫০ লাখ পাউন্ডের তহবিল ঘোষণা করেন তিনি। ওই সম্মেলনে প্রখ্যাত আইনজীবী ও মানবাধিকার ব্যক্তিত্ব আমাল ক্লুনিও অংশ নেন। গণমাধ্যম এবং সাংবাদিকদের প্রতি ট্রাম্পের নিয়মিত গালাগালের তীব্র সমালোচনা করেন বক্তারা। যুক্তরাজ্য এবং কানাডার উদ্যোগে আয়োজিত দু’দিনের সম্মেলনে বাংলাদেশসহ শতাধিক দেশের সরকারি প্রতিনিধি, সাংবাদিক এবং মানবাধিকার কর্মীরা অংশ নেন।

You may also like

সংসদ ভবনে অধ্যাপক মোজাফফরের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত

রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং সর্বস্তরের জনসাধারনের শ্রদ্ধায় বিদায় নিলেন