রোহিঙ্গা গণহত্যা: আন্তর্জাতিক আদালতে মিয়ানমারের পক্ষে লড়বেন সুচি

রোহিঙ্গা গণহত্যা ও বর্বর নির্যাতনের অভিযোগে এই প্রথম আন্তর্জাতিক আদালতে বিচার শুরু হতে যাচ্ছে ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে। এই আইনী লড়াইয়ে অংশ নিয়ে মিয়ানমারকে কলুষমুক্ত করার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন দেশটির স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুচি। মিয়ানমারে গণহত্যার অভিযোগে গাম্বিয়ার মামলার জেরে ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর শুনানি করবে আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত-আইসিজে। নেদারল্যান্ডসের হেগে এই শুনানিতে মিয়ানমারের পক্ষে যুক্তি উত্থাপন করবেন অং সান সুচি।

স্টেট কাউন্সিলের দপ্তর থেকে জানানো হয়, সরকার ও সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ খণ্ডনে আইনজীবীদের পরামর্শ নিচ্ছেন তিনি। একই অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত-আইসিসিতে মামলা হলেও প্রত্যাখ্যান করে মিয়ানমার। এদিকে, সুচির সমালোচনা করে বিবৃতি দিয়েছেন গ্লোবাল জাস্টিজ সেন্টারের প্রেসিডেন্ট আকিলা রাধাকৃষ্ণ। জানান, গণহত্যার পক্ষ নিচ্ছেন সুচি। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে উচ্ছেদে ২০১৭ সালে নির্বিচারে হত্যা, ধর্ষণ ও বর্বর নির্যাতন চালায় মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও কট্টর বৌদ্ধ ভিক্ষুরা। প্রাণভয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় সাত লক্ষাধিক রোহিঙ্গা। এতে, নিশ্চুপ থেকে ব্যাপক সমালোচিত হন শান্তিতে নোবেল বিজয়ী সুচি।

You may also like

ফোনালাপ বিকৃতভাবে আংশিক প্রচার হয়েছে: নূর

ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের দাবি, তার ফোনালাপ