এমপি লিটন হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনের ক্ষমতাসীন দলের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যার আলোচিত মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ে জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য ডা: কাদের খাঁনসহ সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। দুপুরে গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এই রায় ঘোষণা করেন।বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কয়েকস্তর কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে আসামীদের আদালতে হাজির করা হয়। যে কোন ধরণের অনাকাংখিত ঘটনা প্রতিরোধে আদালতে চত্বরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল পরিমাণ সদস্য মোতায়েন ছিল। রায় ঘোষণার পর আসামীদের আত্নীয় স্বজন আদালত প্রাঙ্গণে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন এবং বাদীপক্ষের লোকজন উল্লাস প্রকাশ করেন।

আলোচিত এই মামলায় মোট ৫৯জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন জাতীয় পার্টির সাবেক সাংসদ অবসরপ্রাপ্ত কর্ণেল ডা: আব্দুল কাদের খান, তাঁর পিএস শামছুজ্জোহা, গাড়ী চালক হান্নান, ভাতিজা, মেহেদী হাসান, শাহীন, রানা মোট আট জন আসামীর মধ্যে কসাই বাবুল বিচারাধীন অবস্থায় অসুস্থ হয়ে কারাগারে মৃত্যুবরণ করে এবং আসামী চন্দন কুমার ভারতে পলাতক রয়েছে।

আসামী পক্ষের আইনজীবি, এই রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে উচ্চ আদালতে আপিল করার ঘোষণা দিয়েছেন। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গার মাস্টারপাড়ার নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। এ ঘটনায় অজ্ঞাত ৫-৬ জনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন নিহত সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটনের বড় বোন ফাহমিদা কাকুলী বুলবুল।

You may also like

ওয়াশিংটনসহ ২৫টি শহরে কারফিউ

কারফিউ জারি আর ন্যাশনাল গার্ড সদস্যদের মোতায়নের পর