২০১৯ বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত বাংলাদেশের খেলা

আগামী বছরের ৩০ মে থেকে ইংল্যান্ডের মাটিতে পর্দা উঠবে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ আসরের। বিশ্বকাপ শুরুর আগে নিজেদের প্রস্তুতি সম্পন্ন করার জন্য কমপক্ষে পাঁচটি সিরিজে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে মাশরাফি মুর্তজা-সাকিব আল হাসানরা। যার মধ্যে তিনটি বিদেশের মাটিতে ও দুটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ঘরের মাঠে খেলবে টাইগাররা।

২০১৯ বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত চারটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজ ও এশিয়া কাপে বাংলাদেশের খেলার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ ছাড়াও যেখানে একাধিক টি-টোয়েন্টি ছাড়াও থাকছে টেস্ট ম্যাচ। এখনো পর্যন্ত পাঁচটি প্রতিযোগিতায় খেলা চূড়ান্ত হলেও সময় গড়ানোর সাথে তা বাড়ার সম্ভাবনাও থাকছে।

আসছে সেপ্টেম্বরে আরব আমিরাতে বসতে যাচ্ছে এশিয়া কাপের ১৪তম আসর। যেখানে কম করে হলেও গ্রুপ পর্বের দুটি ম্যাচে খেলবে টাইগাররা। গ্রুপ পর্বের বাধা টপকাতে পারলে প্রতিযোগিতাতে ম্যাচ সংখ্যা আরও বেড়ে যাবে মাশরাফিদের।

এশিয়া কাপ শেষে দেশে ফিরে ঘরের মাঠে সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টেস্ট ম্যাচে লড়বে স্বাগতিক বাংলাদেশ। এরপর আবারও ঘরের মাটিতে উইন্ডিজকে আতিথেয়তা দিবে স্বাগতিকরা। যেখানে তিন ওয়ানডে ছাড়াও দুই টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে লড়বে মাশরাফি-সাকিবরা।

ঘরের মাঠে উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ শেষ করে নতুন বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড উড়াল দিবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এই সফরে স্বাগতিক কিউইদের বিপক্ষে তিন ওয়ানডের পর সাদা পোশাকেও তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে লড়াই করবে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ।

এরপর আবারও বিদেশের মাটিতে সিরিজ খেলতে রওনা হবে টাইগাররা। এই সফরে আইরিশদের বিপক্ষে কমপক্ষে চার ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে মুখোমুখি হবে সফরকারীরা। দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত না হলেও ধারণা করা হচ্ছে বিশ্বকাপকে সামনে রেখেই আয়োজন করা হবে সিরিজটি।

You may also like

প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন নওশাবা

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় গ্রেপ্তার