এবারের কুরবানী ঈদে ২৩৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫৯ জন নিহত; আহত ৯৬০

এবারের কুরবানী ঈদে ২৩৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫৯ জন নিহত এবং ৯৬০ জন আহত হয়েছেন। গত বছরের তুলনায় এবার এ হার নিহতের সংখ্যা কমলেও বেড়েছে দুর্ঘটনা ও আহতের সংখ্যা। যাত্রী কল্যাণ সমিতির সংবাদ সম্মেলনে এই পরিসংখ্যান তুলে ধরা হয়েছে। এখানে অংশ নেয়া আলোচকরা বলেন, আইনের শাসন না থাকায় সড়ক দুর্ঘটনা কমছে না। আবার নতুন যে আইন হতে যাচ্ছে, সেখানেও মালিকদের স্বার্থই রক্ষা করা হচ্ছে বলে আশঙ্কা তাদের।

এবছর ঈদুল আযহা উপলক্ষে বাড়ি যাওয়া এবং কর্মস্থলে ফিরতে গিয়ে ১৬ আগস্ট থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত সড়ক দুর্ঘটনার হিসাব তুলে ধরে যাত্রী কল্যাণ সমিতি। ডিআরইউতে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে নানা মহলের নজরদারি বেড়েছে। এতে রোযার ঈদের তুলনায় কুরবাণী ঈদে দুর্ঘটনা কিছুটা কমেছে। তবে গত বছরের চেয়ে দুর্ঘটনা বেড়েছে।

সড়ক দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে গাড়ির চালকদের বেপরোয়া মনোভাব, গাড়ি পরীক্ষা না করে সনদ দেয়া, বেশি টাকার জন্য মালিকদের চাপ প্রয়োগ- সর্বোপরি সরকারি সংস্থাগুলোর ব্যর্থতাকে দায়ী করেন এখানে অংশ নেয়া বিশিষ্টজনেরা।

জবাবদিহিতা না থাকলে সরকারের প্রশংসনিয় পদক্ষেপও কাজে আসবে না বলে মন্তব্য করেন বিশিষ্ট জনেরা। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গঠিত কমিটিগুলো প্রতিবেদন কখনো প্রকাশ করা হয় না জানিয়ে বক্তরা বলেন, কমটিগুলো করাই হয় যেন অন্য কেউ এ নিয়ে কথা বলার সুযোগ না পায়।

-আরিফুল হক

You may also like

বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু

নির্বাচনের পরিবেশ ঠিক না হলে ভোটে অংশ নেয়ার