শপথ নিলেন সিলেট ও রাজশাহীর মেয়র

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জনপ্রতিনিধিরা কে কোন দলের, সেটা বিবেচনায় না নিয়ে জনগণের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। দেশে গণতন্ত্র সুদৃঢ় ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত বলেই বিভিন্ন দলের মানুষ ভোট দিয়ে নিজেদের পছন্দের জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করতে পারছে বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

শপথের মধ্য দিয়ে কার্যভার বুঝে নিতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে আসেন রাজশাহী ও সিলেটের নবনির্বাচিত নগর পিতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও আরিফুল ইসলাম চৌধুরী। সঙ্গে ছিলেন দুই সিটি নির্বাচনে বিদয়ী কাউন্সিলররাও। দুই মেয়রের শপথ পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এরপর কাউন্সিলরদের শপথ বাক্য পাঠ করান স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। নিজের শুভেচ্ছা বক্তব্যে বিজয়ীদের অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক পরিচয় দিয়ে নয়, দেশের সব মানুষের জন্য সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত করতে চায় তার সরকার।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণের রায়ে যারাই ক্ষমতায় আসুক, দেশের উন্নয়নের ধারাটা অব্যাহত রাখতে হবে। দেশকে আর পিছিয়ে পড়তে দেয়া যাবে না।  প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলে উন্নয়ন তরান্বিত হবে, সেটা আজ প্রমাণিত।

 

You may also like

জাতীয় ঐক্য দেখে আতঙ্কিত আ. লীগ : মোশাররফ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ডক্টর খন্দকার মোশাররফ হোসেন