দ্বিতীয় হজ প্যাকেজ কমপক্ষে ৩ লাখ ৪৪ হাজার

ধর্মপ্রতিমন্ত্রী এডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ জানিয়েছেন, হজ প্যাকেজে গতবারের থেকে ধরা বাড়তি টাকা সৌদি সরকারের নির্ধারিত। এবছর, সরকার নির্ধারিত দ্বিতীয় হজ প্যাকেজের তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকার কম কোন যাত্রীর কাছ থেকে না নিতে এজেন্সিগুলোর প্রতি আহবান জানান প্রতিমন্ত্রী। অন্যদিকে, উড়োজাহাজের ভাড়া স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় আড়াইগুন বেশি হবার কারণ অদৃশ্য বলে জানান ধর্মসচিব।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই ধর্ম প্রতিমন্ত্রী গণমাধ্যমের সমালোচনা করছিলেন। গেলো বছরের চেয়ে এবছর হজের খরচ বৃদ্ধির সংবাদ প্রচারে কিছুটা ক্ষুব্ধ তিনি। প্রতিমন্ত্রীর ব্যাখ্যা, বিমান ভাড়া দশ হাজার টাকা কমিয়েছে সরকার। কিন্তু দুটি প্যাকেজে বাড়তি ২০ ও ১২ হাজার টাকা বাড়িয়েছে সৌদি সরকার।

হজের সময় অস্বাভাবিক ভাড়া আদায়ের জন্য এয়ারলাইন্সগুলো বরাবরই খালি আসার দোহাই দেয়। কিন্তু সৌদি এয়ারলাইন্স কোন বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা না করায় খালি থাকে না কোন সময়ই। তাহলে, উড়োজাহাজের ভাড়া প্রায় আড়াইগুন বেশি কেন ? এমন প্রশ্নে ক্ষেপে যান সচিবও।

তবে আশ্বাস মিলেছে হজ ব্যবস্থাপনায় কোন অনিয়ম হবে না এবার। হজ এজেন্সিস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ- হাবও বলছে সরকার নির্ধারিত দ্বিতীয় প্যাকেজ তিন লাখ ৪৪ হাজারের কম নিলে সঠিক সেবা দিতে পারবে না সেসব এজেন্সি। এবছর এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ হজ হজযাত্রীর মধ্যে ১ লাখ ২০ হাজার যাবেন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায়।

মিরাজ হোসেন গাজী,বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

সন্তানরা ক্ষমা করলেও, ক্ষমা করেনি আদালত

সন্তানরা চাইলেও ক্ষমা করেনি আদালত। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ১৩