এই মুহূর্তে ধানের ন্যায্য দাম দেয়া সম্ভব নয়: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ডক্টর আব্দুর রাজ্জাক সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, এই মুহূর্তে কৃষকদের জন্য ধানের ন্যায্য দাম নিশ্চিত করতে সরকারের কিছুই করার নেই। গুদাম সঙ্কটের কথা জানিয়ে তিনি বলেছেন, সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ সম্ভব নয়। সেচ, সার, বীজ, কীটনাশক – কৃষির সব উপকরণের খরচ গত কয়েক বছরে বেড়েছে কয়েক ধাপ। অন্যদিকে কমেছে ধানের দাম।

তাই বাড়তি ফলন নিয়ে গর্ব না করে বাংলার কৃষক এখন হাহুতাশ করে যাচ্ছেন। দেশের চল্লিশ শতাংশ মানুষের জীবিকার স্থল কৃষি খাতের এই বিপর্যয় চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে সার্বিকভাবে কৃষিকাজ ও কৃষিপণ্য বিপণনের যে ব্যবস্থাপনা তা কৃষককে দিনে দিনে কেবল প্রাণ্তিক মানুষে পরিণত করছে।

দেশের মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা যার ওপর নির্ভরশীল – সেই কৃষক না বাঁচলে দেশ বাঁচবে কিভাবে এই চিন্তা এখন ঘুরপাক খাচ্ছে দেশের আনাচে কানাচে। শনিবার রাজধানীতে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে কৃষিমন্ত্রী রাখঢাক না করেই জানিয়ে দেন – কিছুই করার নেই সরকারের।

মন্ত্রীর দাবি, দেশ উন্নয়নের একটি পর্যায় পার করেছে বলেই বাম্পার ফলন নিয়ে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এজন্য ত্যাগ স্বীকারের আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী উদাহরণ দেন উন্নত দেশের। তবে বাজারে পর্যাপ্ত ধান-চাল থাকার পরেও এখনো কেন চাল রপ্তানি চলছে – এ বিষয়ে কিছু বলেননি কৃষিমন্ত্রী।

সাইমুল হক, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা-দক্ষতা বিবেচনায় সেনা সদস্যদের পদোন্নতি : প্রধানমন্ত্রী

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস, নেতৃত্ব, পেশাগত দক্ষতা, শৃঙ্খলা ও