একমাসের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ধ্বংসের নির্দেশ

বিভিন্ন ফার্মেসিসহ বাজারে থাকা মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ জব্দ করে ধ্বংসের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিয়ে অগ্রগতি প্রতিবেদন জমা দিতে সরকারকে ৩০ দিন সময় বেঁধে দিয়েছেন আদালত। এদিকে, আদালতের এই নির্দেশকে স্বাগত জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অনুষদের অধ্যাপক আ ব ম ফারুক। স্পর্শকাতর বিষয়ে শুধু আদালতের মুখাপেক্ষী না থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ও ভেজাল প্রতিরোধে নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান-ওষুধ প্রশাসন পরিদপ্তরে শুদ্ধি অভিযানের পরামর্শ তার।

রাজধানীর মিটফোর্ডসহ বিভিন্ন নামি-দামি ফার্মেসি থেকে নকল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ জব্দ হচ্ছে হরহামেশাই। শুধু ফার্মেসি নয়, বাসা-বাড়িতে অভিযান চালিয়ে জনপ্রিয় কোম্পানির নামে নকল ওষুধ জব্দেও অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। জড়িতদের দেয়া হচ্ছে জেল-জরিমানাও। কিন্তু তাতেও থামানো যাচ্ছে না ভেজাল চক্রকে।

ঢাকার ৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি হচ্ছে, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের এমন মন্তব্য গড়ায় আদালত পর্যন্ত। এ বিষয়ে এক রিট শুনানিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সংরক্ষণ ও বিক্রি বন্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকারকে এক মাস সময় দিয়েছেন বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ ।

জনস্বার্থে জারি করা উচ্চ আদালতের এ নির্দেশনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অনুষদের অধ্যাপক আ ব ম ফারুক। ভেজাল ঠেকাতে ওষুধ প্রস্তুত ও মান নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বশীলদের জবাবদিহিতা নিশ্চিতের তাগিদ দেন তিনি। মানুষের জান ছিনিমিনি খেলা সংশ্লিষ্টদের কঠোর সাজার পাশাপাশি এ যাবত গঠিত সব তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ ও দায়ীদের শাস্তি নিশ্চিতের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

জিয়াউল হক সবুজ, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

আজও আন্দোলনে উত্তাল বুয়েট

আবরার ফাহাদ হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে বুয়েটে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন