সব হাসপাতালে সার্বক্ষণিক চিকিৎসকদের উপস্থিতি থাকতে হবে: হাইকোর্ট

দ্রুত সময়ে মশা মারার কার্যকর ওষুধ আনতে সিটি কর্পোরেশনকে সহায়তা করতে সরকারি সব সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোট। বিচারপতি তারিকুল হাকিম ও বিচারপতি মোহাম্মদ সোহরাওয়ার্দীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদেশে আরো বলা হয়, বেসরকারি হাসপাতালগুলোতেও সহযোগি অধ্যাপকের নিচে নন, এমন চিকিৎসকদের সার্বক্ষণিক উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।

এডিস মশা মারার কার্যকর ওষুধ দ্রুততম সময়ে আনতে কী পদক্ষেপ নেয়া যায়, তা জানাতে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিবকে দুপুর দুইটায় তলব করেছিলেন হাইকোর্ট। আদালতে হাজির হয়ে সচিব জানিয়েছেন, ওষুধ আমদানিতে সিটি করপোরেশনকে সব ধরণের সহায়তা করবে মন্ত্রণালয়। রাজধানী ঢাকাতে ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হওয়ার পর গণমাধ্যমে আসা প্রতিবেদন বিবেচনায় নিয়ে গত ১৪ জুলাই হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ অন্তর্বর্তী আদেশ দিয়েছিলেন। এরপর ওষুধ আনা নিয়ে সিটি করপোরেশনের কাছে প্রতিবেদন চেয়েছিলেন আদালত।

আজ সকালে দুই সিটি করপোরেশন প্রতিবেদন জমা দেয়। পরে শুনানীতে উত্তর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিমানে করে ওষুধের নমুনা আসতে সময় লাগবে। আর দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওষুধ আনা তাদের দায়িত্ব নয়। শুনানীর এক পর্যায়ে আদালত স্থানীয় সরকার সচিবকে হাজির হবার নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।

You may also like

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর নিয়ে আশাবাদী হওয়ার কিছু নেই : ফখরুল

নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতেই চামড়ার বাজারে অস্থিরতায় বিএনপিকে জড়িয়ে