ঈদে ঘরমুখো মানুষের বাস-ট্রেনে নানা বিড়ম্বনা

ঈদ যাত্রার দ্বিতীয় দিনে ভিড় বেড়েছে বাস-ট্রেন-লঞ্চে। ট্রেনে তুলনামূলক ভাবে যাত্রীদের চাপ সবচেয়ে বেশী। উত্তরবঙ্গের ট্রেনগুলো গড়ে তিন থেকে চার ঘন্টা লেটে চললেও, অন্যান্য ট্রেন সময় মত কমলাপুর ছেড়ে গেছে। ঈদ যাত্রার ২য় দিনে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে সড়ক পথেও, ছিল টিকিট নিয়ে যাত্রীদের অভিযোগও। বৃহস্পতিবার কমলাপুর থেকে মেইল-আন্তনগর মিলিয়ে ৫৫টি ট্রেন ঢাকা ছেড়ে যায়। যাত্রীদের চাপ সামলাতে আসন সংখ্যা ছাড়াও প্রতিটি ট্রেনে বিশ থেকে ত্রিশ শতাংশ স্টেডিং টিকিট দেয়া হচ্ছে। এছাড়া কমলাপুরের শৃঙ্খলা-নিরাপত্তা ব্যবস্থাও এবার বেশ কড়া। প্লাটফর্মের ভীর সামলাতে টিকিট ছাড়া কাউকেও প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না।

ঈদ যাত্রার দ্বিতীয় দিনে উত্তরবঙ্গ ছাড়া প্রায় সব অঞ্চলের ট্রেন সময়মত ছেড়েছে। তবে রংপুর, দিনাজপুর, লালমনিরহাটগামী আন্তনগর ট্রেনগুলো ২য় দানের অস্বাভাবিক দেরী করেছে। দীর্ঘ পথ আর বন্যায় লাইন ক্ষতিগ্রস্তের কারনে এই দেরী বলে জানান স্টেশন ম্যানেজার। এদিকে সায়দাবাদ টার্মিনালে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ কমথাকলেও, মহাখালী টার্মিনালে যাত্রীদের চাপ লক্ষ করা যায়। টিকিট না পাওয়াসহ যাত্রী নানা অভিযোগ রয়েছে। রাজধানীর সদর ঘাট থেকে নৌ-পথেও বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষ।

You may also like

ময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্রের ভাঙনে ভিটেমাটি ছাড়া শতাধিক পরিবার

ভয়াবহ রূপ নিয়েছে ময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্রের ভাঙন। প্রতিদিনই নদী