বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা, শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়েছে বহিরাগতরা। এতে অন্তত ২০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীদের আজকের মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মনোজ শাহার রিপোর্ট.। গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে জোর আন্দোলন গড়ে তোলেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলন ঠেকাতে শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এই নির্দেশ উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের বাইরে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন করতে থাকেন। এসময় বহিরাগতরা তাদের ওপর হামলা চালালে কমপক্ষে ২০ শিক্ষার্থী আহত হয়। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন তাদের একটায় দাবি ভিসির পদত্যাগ।

তিন অক্টোবর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের নির্ধারিত সময় থাকলেও তা ২২ সেপ্টেম্বর থেকে করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে ফেসবুকে লেখার জেরে ১১ সেপ্টেম্বর আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপাচার্যের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এর পরই উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা।

You may also like

বোর্ড-ক্রিকেটার দ্বন্দ্ব মেটাতে আলোচনার পথ খোলা: বিসিবি

বোর্ড-ক্রিকেটার দ্বন্দ্ব মেটাতে আলোচনার পথ খোলা রেখেছে বিসিবি।