বুলবুলের তাণ্ডবে বাগেরহাট ও সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি

ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে বাগেরহাট ও সাতক্ষীরায় মাছের ঘের ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। শীতকালীন সবজির ক্ষতিতে দিশেহারা কৃষক। এছাড়া, অনেক এলাকা এখনো বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন। বাগেরহাটে সাত হাজার দুশ ৩৪টি মাছের ঘের এবং ৩৫ হাজার পাঁচশ ২৯ হেক্টর জমির আমন ও সবজির সর্বনাশ করে বিদায় নিয়েছে ঘুর্ণিঝড় বুলবুল। এছাড়া, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪৪ হাজার পাঁচশ ৬৩টি বাড়িঘর।

এদিকে, এখনো বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন সাতক্ষীরার উপকূলীয় অঞ্চল। স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছে স্থানীয়রা। সড়ক উপড়ে পড়া গাছ সরিয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছে সেনাবাহিনী ও এলাকাবাসী। নৌবাহিনীর একটি ত্রাণবাহী জাহাজ শ্যামনগর উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন গাবুরা দ্বীপের খোলপেটুয়া নদীতে অবস্থান করছে। বুলবুলের তাণ্ডবে শ্যামনগর, কালিগঞ্জ ও আশাশুনির প্রায় ১৭ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। নষ্ট হয়েছে উপকুলীয় এলাকার পাঁচ হাজার সাতশ ১৯ হেক্টর চিংড়ি ঘের ও ২৭ হাজার হেক্টর জমির ফসল।

মোংলায় ঘর-বাড়ি বিধস্ত হয়েছে প্রায় দেড় হাজার। মৎস্যঘের তলিয়ে ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে কোটি টাকা। নষ্ট হয়েছে রাস্তা ঘাটও। সরকারি সহায়তার অপেক্ষা করছে ক্ষতিগ্রস্তরা।  মোংলা উপকুলে ঝড় আঘাত আনার আগ থেকেই বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ। ক্ষতিগ্রস্থ লাইন দ্রুত সংস্কারের আশ্বাস দিয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগ । এদিকে, দ্রুত সময়ের মধ্যে সরকারি সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন। বুলবুলের আঘাতের পর সুন্দরবনে পর্যটকদের প্রবেশাধিকার সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে। আর খুলনায় ক্ষয়ক্ষতির জরিপে কাজ করছে ৬০টি কমিটি।

You may also like

ফোনালাপ বিকৃতভাবে আংশিক প্রচার হয়েছে: নূর

ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের দাবি, তার ফোনালাপ