বহুল আলোচিত হলি আর্টিজান মামলার রায় কাল

বহুল আলোচিত হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলা মামলার রায় কাল বুধবার। ঘটনার প্রায় তিন বছর চার মাস পর এ রায় ঘোষণা হচ্ছে । রায়কে ঘিরে আদালত ও আশপাশে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকছে বলে জানিয়েছেন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট প্রধান মনিরুল ইসলাম। মামলার নিখুঁত তদন্তের ফলে আসামিরা সর্বোচ্চ শাস্তি পাবে বলে আশা করেন তিনি। অপরাধ বিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. জিয়া রহমানের মতে, রায়ে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সাধারন মানুষের প্রত্যাশা পূরণ হবে। তবে ভবিষ্যতে জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় গোয়েন্দাদের আরো কৌশলী হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। রিপোর্ট জিয়া খানের।

পহেলা জুলাই ২০১৬, গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে বাংলাদেশের ইতিহাসের জঘন্যতম বর্বরতা চালায় জঙ্গিরা। অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অর্ধ-শতাধিক দেশি-বিদেশী নাগরিককে। তাদের উদ্ধারে পুলিশ এগিয়ে গেলে জঙ্গিদের গ্রেনেড হামলায় প্রাণ হারান এসি রবিউল ও ওসি সালাউদ্দিন আহমেদ। জঙ্গিরা রাতভর নির্মমভাবে হত্যা করে ১৭ বিদেশি নাগরিকসহ ২০জনকে। পরেরদিন ভোরে যৌথ বাহিনীর অপারেশন থান্ডারবোল্টে নিহত হয় পাঁচ জঙ্গি। জিম্মিদশা থেকে উদ্ধার করা হয়েছিলো ১৫জনকে।

এরপর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একের পর এক অভিযানে জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবি’র শীর্ষ সারির নেতা তামিম চৌধুরি, সরোয়ার জাহান, চাকরিচ্যুত মেজর জাহিদ, তানভীর কাদেরি, মারজানসহ বন্দুকযুদ্ধে মারা যায় আট জঙ্গি। যারা হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় জড়িত ছিলো বলে দাবি গোয়েন্দাদের। গেলো বছরের শেষদিকে সোহেল মাহফুজ ওরফে হাত কাটা মাহফুজ, রাজিব গান্ধি, রিগান, রাশেদ ওরফে RASH, রিপন, খালিদ, মিজানুর রহমান ও হাদিসুর রহমান সাগরকে আসামি করে আদালতে চার্জশীট দেয় পুলিশ। আট আসামিই এখন কারাগারে। মামলায় ২১১ সাক্ষির মধ্যে ১১৩জনের জবানবন্দি নেয়া শেষ হয়েছে। মামলার উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে বুধবার ঘোষণা হতে যাচ্ছে বহুল আলোচিত এ রায় ।

এ মামলায় প্রত্যাশিত রায় পাবেন বলে আশা কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট প্রধানের। অপরাধ বিশ্লেষক ড. জিয়া রহমানেরও ধারণা, রায়ে জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হবে। জঙ্গিবাদের ঘটনার অন্য মামলাগুলোরও দ্রুত বিচার কাজ শেষ করে দায়িদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করলেই সাধারন মানুষের মাঝে জঙ্গিবাদ বিরোধী চেতনা আরো বাড়বে বলে অভিমত বিশ্লষকদের।

জিয়া খান, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

ভারতের এনআরসি বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি: ফখরুল

স্বাধীনতার ৫০ বছরের দ্বারপ্রান্তে এসে দেশ এখন গণতন্ত্রহীন