শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালনে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান ভিসির

শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনা তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর আখতারুজ্জামান। শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালনে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বানও জানান তিনি। এদিকে, দ্রুত আসামিকে শনাক্ত করে শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছেন মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম।আর আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, দোষী যেই হোক কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।আগামী শনিবার বেলা তিনটায় শাহবাগ থেকে কুর্মিটোলা পর্যন্ত গণপদযাত্রার ঘোষণা দিয়েছে যৌন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থী জোট।অন্যদিকে ধর্ষণ মামলার প্রতিবেদন ২৮ জানুয়ারি দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

রাজধানীর কূর্মিটোলায় শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনার উত্তপ্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশনের রয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ শিক্ষার্থী। বিচারের দাবিতে সোমবার সকাল থেকে দফায় দফায় বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ মিছিল নিয়ে জড়ো হন রাজু ভাস্কর্যের সামনে। দাবি একটাই, ধর্ষন বন্ধ এবং ধর্ষনের মৃত্যুদন্ডের শাস্তি।

ধর্ষককে দ্রুত আটক করতে স্বরাষ্ট্র সচিব বরাবর স্মারকলিপি উপাচার্যের কাছে জমা দিয়েছে ছাত্রদল। অন্যদিকে, ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রতিবাদী আল্পনা একেছেন শিক্ষার্থীরা। ধর্ষককে আটক না করা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কথাও জানান ছাত্র সংগঠনের নেতারা। এছাড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে সাধারন ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদের নেতাকর্মীরা।

শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ন আন্দোলনে সহর্মমিতা জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য তদন্তে সব ধরণের সহযোগিতা দেয়ার কথা বলেন। এদিকে, শিক্ষার্থীকে দেখতে ঢাকা মেডিকেলে যান মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান। আসামী গ্রেপ্তার ও দ্রুত শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান তিনি। অন্যদিকে, শিক্ষার্থীর শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক। প্রযুক্তির সহায়তায় আসামী শনাক্তে চেষ্টা চলছে বলে জানান, গুলশানের ডিসি সুদীপ চক্রবর্তী। অন্যদিকে, আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারি জানান, ঘটনাটি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

দিপন দেওয়ান, বাংলাভিশন, ঢাকা

You may also like

জার্মানীতে বন্দুক হামলা, নিহত ১১

জার্মানীর পশ্চিমাঞ্চলীয় হানাউ শহরে দু’টি সিসা বারে গুলিবর্ষণের