দেশে প্রথমবারের মতো করোনায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু

দেশে প্রথমবারের মতো করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আরো চারজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে মোট আক্রান্ত ১৪। মৃত ওই রোগী এবং আক্রান্ত, সবাই বিদেশ ফেরতদের সংস্পর্শে এসেছিলেন। আইইডিসিআর এসব তথ্য জানিয়েছে। সংস্থাটির পরিচালক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতেই হবে। বন্ধ করতে হবে জনসমাগমও। নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে করোনার সবশেষ পরিস্থিতি জানাতে একজনের মৃত্যুর খবর জানান আইইডিসিআর পরিচালক।  আইইডিসিআর পরিচালক জানান, এখন পর্যন্ত যতগুলো আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে, তারা সবাই প্রবাস ফেরত আত্মীয় দের সংস্পর্শে এসেছিলেন। প্রবাস ফেরতরা হোম কোয়ারেন্টিনের নিয়ম মানেন নি। অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসা নিতে এসে বিদেশ ভ্রমণের কথা গোপন করেছেন।

বিদেশ থেকে ফিরে বাড়িতে না গিয়ে অন্য কোথাও লুকিয়ে আছে- এমন ঘটনাও আছে। প্রবাস ফেরতদের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে এখন জনসাধারণের সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি। যেহেতু সামাজিকভাবে সংক্রমণ শুরু হয় নি সেজন্য অন্যান্য দেশকে অনুসরণ করে শাট ডাউনের বিপক্ষে আইইডিসিআর পরিচালক। তবে জনসমামগ বন্ধ করতেই হবে- এমন কথা বলেছেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, আইইডিসিআরের পরীক্ষা করার সক্ষমতা আছে। তবে আশঙ্কা যেহেতু বাড়ছে, অন্য ল্যাবেও পরীক্ষা শুরু হতে পারে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র যে কীট আবিষ্কার করেছে, তা দেখা হচ্ছে। করোনা ভয়ঙ্কর না হলেও ছোয়াচে, তাই সবাইকে বাড়তি সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা। আরিফুল হক, বাংলাভিশন, ঢাকা

You may also like

সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই নেই লঞ্চে

সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই নেই লঞ্চে। যাত্রীরা মানছেন