করোনা উপসর্গ নিয়ে আরো চারজনের মৃত্যু

করোনার উপসর্গ নিয়ে মাদারীপুর, কুমিল্লা, নেত্রকোণা ও গাইবান্ধায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। নারায়ণঞ্জের সোনারগাঁয়ে সর্দি, কাশি ও জ্বরে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। কিন্তু তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কি না এ বিষয়ে এখনো জানা যায়নি। লকডাউন করা হয়েছে বাড়ির আশপাশ। আতঙ্ক ছড়িয়েছে পুরো এলাকায়। এদিকে, বগুড়ায় এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হওয়ায় ছয় চিকিৎসক ও ১৬ জন নার্সকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে, প্রথমবারের মতো কেরানীগঞ্জের জিনজিরা এলাকায় একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

মাদারীপুরের কালকিনিতে জ্বর ও গলা ব্যথা নিয়ে একজন মারা গেছেন। তার নমুনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর। এঘটনায় নজরদারিতে রাখা হয়েছে আশপাশের কয়েকটি বাড়ি।

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে জ্বর, সর্দি ও কাশি নিয়ে মারা গেছেন একজন। করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। লকডাউন করা হয়েছে ৭টি বাড়ি।

নেত্রকোণার পূর্বধলায় সর্দি ও জ্বরে আক্রান্ত হয়ে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এনিয়ে মারা গেছের তিনজন। এলাকার ৮টি বাড়ি লগডাউন করা হয়েছে।

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। লগডাউন করা হয়েছে সিঙ্গাইর পৌর এলাকা।

এদিকে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে জ্বর, সর্দি ও শ্বাস কষ্ট নিয়ে একজন মারা গেছেন। এছাড়া, সাদুল্লাপুর এলাকায় আরো এক নারীর করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫।

নারায়ণঞ্জের সোনারগাঁয়ে সর্দি, কাশি ও জ্বরে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। কিন্তু তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা এ বিষয়ে এখনো জানা যায়নি।

প্রথমবারের মতো কেরানীগঞ্জের জিনজিরা এলাকায় এক জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। লকডাউন করা হয়েছে তার বাড়ির আশপাশ।

বগুড়ায় এক ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে। তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আশা ৬ চিকিৎসক ও ১৬ জন নার্সকে কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হওয়ায় তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে একজনের করোনা শনাক্তের পর তাকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে রাখা হয়েছে। তার শারিরীক অবস্থা উন্নতির দিকে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন।

রংপুর বিভাগের ৬ জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫৮ জন। জয়পুরহাটে ১১ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। আইসোলেশনে রয়েছেন তিনজন।

অন্যদিকে, ভারত থেকে ৪৮ বাংলাদেশি ভোমরা ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট দিয়ে দেশে ফিরেছেন। এতে আতঙ্কিত এলাকার মানুষ। বন্দরে সতর্কতা জারী করা হয়েছে।

বরিশালের ১০ জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬৯০ জন। রাজশাহীতে নতুন আরো ১৮ জনসহ মোট কোরায়েন্টিনে রয়েছেন ৩০৬ জন।

You may also like

০৪ জুন, বৃহস্পতিবার ২০২০

সকাল ৮:৩০ : দিন প্রতিদিন বেলা ১১:০৫ :