বাংলাদেশেও করোনার বিকল্প ওষুধ প্রয়োগ শুরু: ডাক্তার আব্দুল্লাহ

করোনা ভাইরাস সংক্রমনে বাংলাদেশ চতুর্থ স্তরে উঠলেও খুব বেশি আতঙ্কিত হবার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ। করোনা প্রতিরোধে স্বীকৃত কোনো ওষুধ আবিষ্কৃত না হলেও আমেরিকা বা জাপানের মতো বাংলাদেশেও বিকল্প ওষুধের প্রয়োগ শুরু হয়েছে বলে জানান কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় সমন্বয় কমিটির উপদেষ্টা ডা. আব্দুল্লাহ। বাংলাদেশেও মহামারি করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে জ্যামিতিক হারে। কোভিড১৯ নামের নভেল করোনার আক্রমনে লকডাউনেও মিলছে না পুরোপুরি সফলতা। আক্রান্তের সংখ্যা যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে তাতে শিগগিরই সংক্রমন বৃদ্ধির পাশাপাশি বহু মানুষকে যেতে হবে হাসপাতালে। পাল্লা দিয়ে বাড়তে পারে প্রাণহানিও। যাকে করোনার চতুর্থ ধাপ বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে নাকানি-চুবানি খাচ্ছে উন্নত বিশ্ব। সব শক্তি দিয়েও এখনো নির্দিষ্ট ওষুধ বা প্রতিষেধকের সন্ধান দিতে পারেনি গবেষকরা। তবে, গুরুতর রোগীর জীবন বাঁচাতে ইউরোপ-আমেরিকায় হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন বা ম্যালেরিয়ার ওষুধের সমন্বয়ে মেডিসিন প্রয়োগ শুরু হয়েছে। জাপানের বিশেষজ্ঞরাও দাবি করছেন, আভিগান ওষুধ প্রয়োগে সফলতার কথা।
করোনার ছোবল থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্যবিধি মানা ও সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিতের পাশাপাশি সরকারি নির্দেশনা যথাযথ অনুসরনের পরামর্শ দেন ডাক্তার আব্দুল্লাহ। জিয়াউল হক সবুজ, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

পেঁয়াজের দাম আরো বাড়তে পারে

রাজধানীর বাজারে দেশি-বিদেশি সব পেঁয়াজের দামই এখনো চড়া।