অনলাইনে বাড়ছে কেনাকাটা

করোনা সঙ্কটে বেশিরভাগ শপিংমল বন্ধ। তাই ঈদ কেনাকাটায় অনলাইন হতে পারে বড় ভরসার জায়গা। সংক্রমণের ঝুঁকি ছাড়াই পছন্দের পণ্য পাবেন ক্রেতারা। ফ্যাশন হাউজগুলো বলছে, অনলাইন কেনাকাটায় ক্রেতা-বিক্রেতা দু’পক্ষই উপকৃত হবেন। আর অর্থনীতিবিদরা বলছেন, অনলাইন কেনাকাটায় সচল থাকবে অর্থনীতির চাকা, ঘুরে দাড়াঁবার সুযোগ পাবেন ব্যবসায়ীরা। করোনা সঙ্কটে পাল্টে গেছে মানুষের জীবনযাত্রা। সামাজিক নানা বিধি-নিষেধে অনেকটা বন্দি জীবন কাটছে নগরবাসীর। তাই এবার অন্যরকম ঈদ আসবে সবার ঘরে। প্রিয়জনদের জন্য কেনাকাটার ঈচ্ছা থাকলেও উপায় নেই। কারণ বেশিরভাগ শপিংমল ও বিপনীবিতান বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে। তবে, যারা কেনাকাটায় আগ্রহী তাদের জন্য বড় প্লাটফর্ম অনলাইন শপিং বা ই-মার্কেট।

ক্রেতা ও বিক্রেতাদের কথা ভেবে বাংলাদেশের বেশিরভাগ ফ্যাশন হাউজ চালু করেছে অনলাইন কেনা-বেচা। ফ্যাশন হাউজের পেজগুলোতে পছন্দের পণ্য অর্ডার করতে পারবেন ক্রেতারা। আর সেটি নিজ দায়িত্বে ক্রেতার ঘরে পৌঁছে দেবেন বিক্রেতা। কেনাকাটায় রয়েছে বিভিন্ন অফার, অনলাই পেমেন্ট ও ডেলিভারীর তথ্য। করোনার ছোবলে অনেকটাই স্থবির হয়ে পড়েছে দেশের অর্থনীতি। সেটিকে সচল করতে ভূমিকা রাখতে পারে ই-মার্কেট বা অনলাইন শপিং। অর্থনীতিবদিরা বলছেন, অনলাইন কেনাকাটায় ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েরই সুরক্ষা নিশ্চিত হবে। অনলাইন কেনাকাটার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট থেকেও কেনার সুযোগ রয়েছে নগরবাসীর।
দিপন দেওয়ান, বালাভিশন, ঢাকা।

You may also like

করোনা পরিস্থিতিতে সীমিত পরিসরে পূজা আয়োজনের প্রস্তুতি

করোনা পরিস্থিতিতে সীমিত পরিসরে পূজা আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে