দীর্ঘস্থায়ী বন্যার শঙ্কা কয়েক এলাকায়

দেশের মধ্যাঞ্চলে বন্যার পানির চাপ আরো বাড়ছে। জামালপুর, সিরাজগঞ্জ, গাইবান্ধা ও কুড়িগ্রামের পরিস্থিতি আগের মতোই। নতুন করে ব্রহ্মপুত্র,যমুনা, ধরলা ও তিস্তার পানি বাড়তে থাকায় বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার শঙ্কায় কয়েকটি এলাকার বানভাসীরা। ত্রাণের জন্য হাহাকার চলছে দুর্গত এলাকায়। বানের পানিতে ডুবে আছে চারপাশ। এখনো ফুসছে দেশের বেশিরভাগ নদনদী। কবে মুক্তি মিলবে পানিবন্দি এ জীবন থেকে? – নেই সেই আভাস।

যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি আবারো বেড়েছে। জামালপুরের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি নেই। তলিয়ে গেছে নতুন নতুন এলাকা। তৃতীয় দফা বন্যায় চরম দুশ্চিন্তায় পানিবন্দি লাখো মানুষ । সিরাজগঞ্জে যমুনার পানি বইছে প্রবল বেগে। দুর্ভোগ সইছে সোয়া দুই লাখ অসহায় মানুষ। তৃতীয় দফা বন্যা ও ভাঙন আতংকে যমুনা নদীতীরবর্তী মানুষ। তীব্র স্রোতে ধসে গেছে সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার বেতিল সলিড স্পার বাধ। আকষ্মিক প্রায় ৭৫ মিটার এ ধসে আতংকে স্থানীয়রা।

ব্রহ্মপুত্র নদের পানি আবারও বৃদ্ধি পাওয়ায় গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বেড়েছে বানভাসীদের দূর্ভোগ। পলাশবাড়ি ও গোবিন্দগঞ্জের নতুন নতুন এলাকা তলিয়ে গেছে। জেলার এবং আশপাশের সব নদীর পানি এখনো বিপদসীমার উপরে। কুড়িগ্রামে আবারও বেড়েছে ধরলার পানি। নতুন করে তলিয়েছে ৫০ গ্রাম। ব্রহ্মপূত্রের পানি এখনো বিপদসীমার উপরে। টানা তিন সপ্তাহ ধরে অবর্ণনীয় কষ্টে তিন লাখ মানুষ। বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার শঙ্কায় তারা।

বগুড়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতিতে ধনুট উপজেলার শহরাবাড়ি খেয়াঘাট ডুবে গেছে। তীব্র খাদ্য সংকটে সারিয়াকান্দির কর্ণিবাড়ি ইউনিয়নের দূর্গম চরের মানুষ। শেরপুরের পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদের পানিও বাড়ছেই। সদর উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি। শেরপুর-জামালপুর মহাসড়কের উপর দিয়ে এখনো বইছে বন্যার পানি।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং-শ্রীনগর ও টঙ্গিবাড়ীর বন্যা পরিস্থিতি খারাপের দিকে। প্রতিদিন তলিয়ে যাচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। মানিকগঞ্জে পদ্মা ও যমুনার পানি স্থিতিশীল থাকলেও শাখা নদীর পানি বেড়েই চলেছে। এতে হরিরামপুর, শিবালয় ও দৌলতপুর উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে।

টাঙ্গাইলে পানিবন্দি লাখো মানুষ। টানা ভারি বৃষ্টিতে তলিয়েছে নতুন নতুন এলাকা। হাট-বাজারগুলোতে পানি প্রবেশ করায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। জেলার বিভিন্ন উপজেলার অভ্যন্তরীন সড়কগুলোতে পানি উঠায় যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন হচ্ছে। আবারো বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে নেত্রকোণায় বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল। তবে, তৃতীয় দফা বন্যার আশংকা নদী তীরবর্তীদের। এদিকে, ভারীবর্ষন আর উজানের ঢলে নাটোরে ফুলে ফেপে উঠেছে আত্রাইয়ের পানি।

You may also like

২৭ অক্টোবর, মঙ্গলবার ২০২০

সকাল ৮:৩০ : অনুষ্ঠান ‘দিন প্রতিদিন’। সকাল ১০:৩০