হেফাজত আমিরের মরদেহ হাটহাজারী মাদ্রাসায়

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমেদ শফীর লাশ চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় পৌঁছেছে। সেখানে জানাযা শেষে তাঁকে দাফন করা হবে মাদ্রাসা কবরস্থানেই। হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা আহমদ শফীর লাশ সকাল সাড়ে ৯ টায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসায় পৌঁছেছে। বেলা দুইটায় তাঁর নামাজে জানাযা হবে মাদ্রাসা মাঠে। এতে ইমামতি করবেন ছেলে মাওলানা আনাস মাদানী। শেষবারের মতো তাঁকে দেখতে মাদ্রাসা এলাকায় জড়ো হয়েছেন দেশের বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এদিকে, তাঁর নামাজে জানাযাকে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন।

পর্যাপ্ত পুলিশ ফোর্স ছাড়াও ১০ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। সাতজন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে হাটহাজারী, রাউজানে, রাঙ্গুনিয়া ও ফটিকছড়ি উপজেলায় ১০ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করবে। আল্লামা শাহ আহমদ শফীর জন্ম চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পাখিয়ারটিলা গ্রামে। তিনি দুই ছেলে ও তিন মেয়ের জনক।

রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটা মাদ্রাসায় শিক্ষা জীবন শুরু হয় আল্লামা শফীর। এরপর পটিয়ার আল জামিয়াতুল আরাবিয়া মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেন তিনি। পরে হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা এবং ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেন। ১৯৮৬ সালে হাটহাজারী দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মহাপরিচালক -মুহতামিম হিসেবে দায়িত্ব নেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

You may also like

উপ-নির্বাচনের ফলাফল বাতিলের দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ

উপনির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে পুন: নির্বাচনের দাবিতে রাজধানীতে