উজানের ঢলে আবারও বাড়ছে তিস্তা ও ধরলা নদীর পানি

টানা বৃষ্টি আর উজানের ঢলে আবারও বাড়ছে তিস্তা ও ধরলা নদীর পানি। তিস্তা ব্যারেজের বিভিন্ন পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ওপরে বইছে। কুড়িগ্রামে ধরলার পানিও বিপদসীমা পেরিয়ে গেছে। এদিকে, লালমনিরহাটের মোগলহাটের দ্বীপচর ফলিমারী এলাকায় ধরলা নদীর তীব্র ভাঙন ঠেকাতে স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করছে গ্রামবাসী।

আশ্বিনের শুরুতে টানা বৃষ্টি আর উজান ঢলে আবারও ফুলে-ফেঁপে উঠেছে উত্তর জনপদের নদী তিস্তা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে পানি বৃদ্ধ অব্যাহত রয়েছে। ফলে তিন জেলার চর নিম্নাঞ্চলের বিস্তৃণ এলাকা তলিয়ে গেছে। নদী তীরর্বতী মানুষদের সর্তক থাকার নির্দেশ দিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

লালমনিরহাটে তিস্তা ও ধরলা নদীর পানি বিপদসীমা ছাড়িয়ে বেশ খানিকটা ওপরেই আছে। জেলার হাতীবান্ধার দোয়ানীতে তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে তিস্তা এবং সদর উপজেলার শিমুলবাড়ী পয়েন্টে ধরলার পানি বিপদসীমার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে জেলার ছোট ছোট নদীগুলোর পানিও বাড়ছে। তলিয়ে গেছে শতাধিক চর, দ্বীপচর ও নদীতীরবর্তী এলাকা। অনেকে বাড়ি-ঘর ভেঙে নৌকায় চড়ে ছুটছেন নিরাপদ আশ্রয়ে।

এদিকে, লালমনিরহাট সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী মোগলহাট ইউনিয়নের দ্বীপচর ফলিমারী এলাকায় ধরলা নদীর ভাঙন তীব্র হচ্ছে। গত তিনদিন ধরে গ্রামবাসি স্বেচ্ছাশ্রমে ভাঙন থেকে মসজিদ ও মাদ্রাসা রক্ষার চেষ্টা করছেন। আগামী একদিন তিস্তা-ধরলার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকার আভাস দিয়েছে বন্যা সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

 

You may also like

উপ-নির্বাচনের ফলাফল বাতিলের দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ

উপনির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে পুন: নির্বাচনের দাবিতে রাজধানীতে