সন্ত্রাস নির্মুলেও সশস্ত্র বাহিনীর সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে অভিযানে সশস্ত্র বাহিনীকে পাশে থাকার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । মানবিক গুনাবলীর কারণে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সশস্ত্র বাহিনী আস্থা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে বলে মনে করেন তিনি । ডিফেন্স সার্ভিস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজের গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনিতে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সশস্ত্র বাহিনীর অফিসারদের কমান্ড ও ষ্টাফ পর্যায়ে দায়িত্ব পালনে দক্ষ করে গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে গড়ে তোলা হয় সামরিক বাহিনী কমান্ড এন্ড স্টাফ কলেজ। প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে যেখান থেকে গ্রাজুয়েশন কোর্স করেছেন বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর ৫২৫৩ জন, পুলিশের ০৫, এবং ৪২টি বন্ধুপ্রতীম দেশের ১১৬৫ জন অফিসার।

৪৫ সপ্তাহের কোর্স শেষে এ বছর সেনাবাহিনীর ১২৫ জন, নৌ বাহিনীর ৩৪ জন, বিমান বাহিনীর ২২ জন ও এশিয়া, আফ্রিকা এবং ইউরোপের ২১ দেশের ৫৪ জন সহ ২৩৫ অফিসারকে গ্রাজুয়েশন সনদপত্র তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে জাতিসংঘ সহ বিশ্বের বুকে দেশের পতাকা তোলায় সশস্ত্র বাহিনীর প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, বিশ্বে সুনাম অর্জন করা সশস্ত্র বাহিনীকে আরো আধুনিক ও প্রশিক্ষিত বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে । মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতির মতো ব্যাধি সমাজ থেকে নির্মুল করতে সশস্ত্র বাহিনীর সহযোগিতা চান সরকার প্রধান । দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সশস্ত্র বাহিনী সরকারের সাথে থাকবে বলেও আশা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। মাহফুজুর রহমান, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

ডা. সাবরিনার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

করোনা পরীক্ষায় জালিয়াতির মামলায় জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা.