শততম টেস্টে বাংলাদেশের রানের রেকর্ড

কলম্বোয় নিজেদের শততম টেস্টে ১২৯ লিড নিয়েছে বাংলাদেশ, তৃতীয় দিন শেষে টাইগাররা এগিয়ে ৭৫ রানে। টেস্টে পঞ্চম সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন সাকিব আল হাসান। অভিষেকেই মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত করেছেন ৭৫। বাংলাদেশ অল আউট হওয়ার আগে তোলে ৪৬৭ রান। জবাবে দিন শেষে শ্রীলংকার সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৫৪।

নিজেদের শততম টেস্টে, লংকানদের কাছে ১২৪ রানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিন সকালে ব্যাটিংয়ে নামেন দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান সাকিব ও মুশফিক। আগের দিন দুইবার জীবন পেয়েও সাকিব ছিলেন উত্তাল। তৃতীয় দিনে ঠিক তার উল্টো। ব্যাটিংয়ে অনেক বেশি দায়িত্বশীল। বরং আক্রমনের ভার নিজের কাধে তুলে নেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

শুরু থেকেই সচল রানের চাকা। ষষ্ঠ উইকেটে সাকিব-মুশফিক দলকে দিলের ৯২ রানের জুটি। হাফসেঞ্চুরিতেও সাকিবের আগে পৌছালেন মুশফিক। টাইগার অধিনায়ক ক্যারিয়ারে ১৭তম হাফ সেঞ্চুরি করে ফেরেন ব্যক্তিগত ৫২ রানে।

২৯০ রানে মুশফিকের বিদায়ের পর আরো বেশি দায়িত্বশীল সাকিব। সাদা পোষাকে প্রথমবার ব্যাট হাতে উইকেটে এসেই আস্থার প্রতিক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। আগের দিনের সেই পাগলামি নেই, দিনের শুরুকে রান আউটের সুযোগ দিয়েও বেঁচে গেছেন। বাকিটা সময় অভিজ্ঞতার সবটুকু নিয়ে হাজির সাকিব। অর্ধশতক পেরিয়ে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগারেও পা রাখলেন সাকিব। ক্যারিয়ারের পঞ্চম আর এ বছরে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি সাকিবের।

ঘরোয়া প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে রান উৎসব করেও টেস্ট অভিষেকের অপেক্ষায় ছিলেন অনেকদিন। সুযোগ মিললো দেশের শততম টেস্টে। সুযোগ পেয়ে সেটি দারুণভাবেই কাজে লাগালেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। সাকিবকে পাশে রেখে করলেন ক্যারিয়ারের হাফসেঞ্চুরির উৎসব। জুটিতে উঠলো ১৩১ রান। শ্রীলংকার ৩৩৮ টপকে বাংলাদেশের লিড প্রায় একশ ছুইছুই। শেষ পর্যন্ত ধৈর্য্য হারালেন সাকিব।

এরপর মিরাজ ও দুই টেইলএন্ডার নিয়ে সৈকতের লড়াই। ৪৬৭ রানে থামলো বাংলাদেশ। ১২৯ রানের লিডে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে মোসাদ্দেক সৈকত করেছেন ৭৫।

যদিও দিন শেষে লিডটাকে ৭৫ রানে নামিয়ে এনেছে শ্রীলংকা। উপুল থারাঙ্গা ও করুনারত্মে তুলে ফেলেছেন ৫৪। শনিবার স্বাগতিকদের কত দ্রুত আউট করতে পারে বাংলাদেশ, তার ওপরই নির্ভর করছে ম্যাচের ভাগ্য।

You may also like

‘কান’-এর রেড কার্পেটে রূপকথা তৈরি করলেন ঐশ্বর্যা

৭০তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের রেড কার্পেটে ঐশ্বর্যাকে দেখে