ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার লুকা মদ্রিচ

উয়েফার পর ফিফারও বর্ষসেরা হয়েছেন লুকা মদ্রিচ। পাঁচবারের বিজয়ী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও গত মৌসুমের আলো ছড়ানো ফুটবলার মোহামেদ সালাহকে হারিয়ে ক্যারিয়ারে প্রথমবার এই পুরষ্কার জিতলেন ক্রোয়াট মিডফিল্ডার। এর মধ্য দিয়ে শেষ হলো গত এক দশক ধরে লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ফিফা বর্ষসেরা কিংবা ব্যালন ডি’অর জয়ের একচ্ছত্র আধিপত্য।

গত মাসে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও মোহামেদ সালাহকে হারিয়ে উয়েফার বর্ষসেরা হওয়ার পর ফিফার এই পুরষ্কার জেতা প্রত্যাশিতই ছিলো লুকা মদ্রিচের। সোমবার লন্ডনে ‘দ্য বেস্ট ফিফা ফুটবল অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে তাকে বর্ষসেরা ঘোষণা করে সেটারই আনুষ্ঠানিকতা সারে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা।

জাতীয় দলের কোচ-অধিনায়কের সাথে বিশ্বজুড়ে ফিফা নির্বাচিত সাংবাদিক ও ফিফা ডটকমে নিবন্ধন করা ফুটবলপ্রেমীদের ভোটে ‘দ্য বেস্ট ফিফা মেনস প্লেয়ার’ নির্বাচিত হন রিয়াল মাদ্রিদের ক্রোয়াট মিডফিল্ডার। উয়েফা বর্ষসেরার দুই প্রতিদ্বন্দ্বী রিযালের সাবেক সতীর্থ পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড রোনালদো ও গত মৌসুমে আলো ছড়ানো লিভারপুলের মিশরীয় ফরোয়ার্ড সালহাকেই হারান রাশিয়া বিশ্বকাপের সেরা ফুটবলার। শেষ হয় মেসি-রোনালদোর ১০ বছর ধরে এই পুরষ্কার জয়ের একচ্ছত্র আধিপত্য।

ইতিহাসের প্রথম ক্লাব হিসেবে রিয়ালের টানা তৃতীয়বার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিলো মদ্রিচের। মাদ্রিদ ক্লাবটির হয়ে গত মৌসুমে উয়েফা সুপার কাপ, স্প্যানিশ সুপার কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপ শিরোপাও জেতেন ৩৩ বছর বয়সী মিডফিল্ডার। আর রাশিয়া বিশ্বকাপে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলে ক্রোয়েশিয়ার ফাইনালে উঠতে রাখেন বড় অবদান। দুটি গোল করার পাশাপাশি সতীর্থকে দিয়ে করান আরেকটি গোল। জেতেন আসরের সেরা খেরোয়াড়ের পুরষ্কার ‘গোল্ডেন বল’।

ফিফার বর্ষসেরায় নারী ফুটবলারের পুরষ্কারটা রেকর্ড ষষ্ঠবারের মতো জিতেছেন ব্রাজিলের মার্তা। সেরা কোচের পুরষ্কার পেয়েছেন ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জেতানো দিদিয়ের দেশাম। বিশ্বকাপের সেরা গোলরক্ষক বেলজিয়ামের থিবো কোর্তোয়ার হাতেই উঠেছে সেরা গোলরক্ষকের পুরষ্কার। তবে, বর্ষসেরা গোলের জন্য ‘পুসকাস’ অ্যাওয়ার্ডটা পেয়েছেন গত ডিসেম্বরে অ্যানফিল্ডে এভারটনের বিপক্ষে লিভারপুলের সমতাসূচক গোলদাতা মোহামেদ সালাহ।

শহিদ খান
বাংলাভিশন স্পোর্টস ডেস্ক

You may also like

স্বাধীনতার অসাম্প্রদায়িক চেতনাতেই এগিয়ে যাচ্ছে দেশ : প্রধানমন্ত্রী

সব ধর্মের মানুষ সমান অধিকার নিয়ে ধর্ম পালন