ফ্লাইটে ল্যাপটপ এবং ট্যাবলেট বহনে নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের

মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার আট দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রগামী ও ফিরতি বিমানের ফ্লাইটে ল্যাপটপ এবং ট্যাবলেটের মতো ইলেকট্রনিক ডিভাইসগুলো নেয়া যাবে না বলে জানিয়েছে মার্কিন কর্তৃপক্ষ। এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়ছে ল্যাপটপ, ট্যাবলেট, পিসি, ডিভিডি প্লেয়ার্স, ক্যামেরা ও ভিডিও গেমস। তবে মোবাইল ফোন ও স্মার্টফোন বিষয়ে এখনও কোনো কিছু বলা হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি সূত্র জানিয়েছে, সংশ্লিষ্ট দেশের ১০টি বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইট পরিচালনাকারী নয়টি এয়ারলাইনস এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়ছে। তবে দেশগুলোর নাম জানানো হয়নি,  কোন এয়ারলাইন্সগুলো এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে এবং সেটি কতদিন থাকবে সে বিষয়টি এখনো পরিষ্কার নয়।

তবে জর্ডানের রাষ্ট্রীয় বিমানসংস্থা এরই মধ্যে টুইটার বার্তায় জানিয়েছিল, উত্তর আমেরিকায় তাদের যেসব ফ্লাইট আসা-যাওয়া করছে সেখানে অধিকাংশ ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি বহন নিষিদ্ধ করবে। তবে টুইটার থেকে তাদের সে বার্তা পরবর্তীতে মুছে ফেলা হয়েছে।

গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে দুবাই ভিত্তিক একটি এয়ারলাইন্সের বিমান সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসু থেকে উড্ডয়নের পরপরই সেখানে বিস্ফোরণ হয়। তদন্তকারীরা জানিয়েছিলেন, একজন যাত্রী একটি ল্যাপটপের মধ্যে বোমা বহন করছিল। সে বোমার বিস্ফোরণ হয়েছিল। কিন্তু সে বিস্ফোরণের পর পাইলট দক্ষতার সাথে বিমানটি অবতরণ করাতে সক্ষম হন। তবে বিমানটি যদি মাঝ আকাশে থাকতো সেক্ষেত্রে বিমানটি ধ্বংস হয়ে যেতে পারতো বলে মনে করেন তদন্তকারীরা।

You may also like

‘কান’-এর রেড কার্পেটে রূপকথা তৈরি করলেন ঐশ্বর্যা

৭০তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের রেড কার্পেটে ঐশ্বর্যাকে দেখে