ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি-গ্রামবাসী সংঘর্ষ, নিহত ৪

গরু জব্দ নিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে বিজিবির গুলিতে চারজন নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে অন্তত ২০ জন। নিহতরা চোরাকারবারী বলে দাবি করেছে বিজিবি। তবে স্থানীয়রা বলছেন, দেশি গরু জব্দে বাধা দেয়ায় গুলি করেছে বিজিবি।

মঙ্গলবার হাটবারে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলের যাদুরাণীহাটে গরু বিক্রি করতে যাচ্ছিলেন বহরমপুর গ্রামের মাহাবুব আলী। ভারতীয় গরু বলে চ্যালেঞ্জ করে ঠাকুরগাঁও বিজিবির বেতনা সীমান্ত ফাঁড়ির সদস্যরা কয়েকটি গরু জব্দ করে। এসময় মাহাবুবের পরিবার ও এলাকাবাসীর প্রতিরোধের মুখে পড়ে তারা। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে বিজিবি সদস্যদের ঘিরে ফেলে তারা। বাধে সংঘর্ষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শতাধিক রাউন্ড এলোপাথাড়ি গুলি চালায় বিজিবি। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই দুজন নিহত হন। আহত হন অন্তত ২০ জন। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে মারা যান আরো দুজন।

স্থানীয়দের অভিযোগ টাকা আদায় করতেই দেশি গরুকে ভারতীয় বলছে বিজিবি। বিজিবি’র ঠাকুরগাঁও ৫০ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তুহিন মোহা. মাসুদ জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলেই গুলি ছোড়ে বিজিবি। গরু চোরাকারবারীরা সংঘবদ্ধভাবে হামলা চালিয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

 

You may also like

যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার হুমকি পুতিনের

ইউরোপে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন হলে পশ্চিমা দেশগুলোর রাজধানীতে